করোনা আতঙ্কে গা-ঢাকা দিয়েছে রেডজোনে থাকা রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের প্রশিক্ষিত স্বাস্থ্যকর্মীরা

নিজস্ব প্রতিনিধি : করোনা আতঙ্কে গা ঢাকা দিয়েছে রেডজোনে থাকা রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগের প্রশিক্ষিত কর্মীরা। এতে নমুনা দিতে চরম হয়রানি ও দুর্ভোগে পড়েছেন উপসর্গে থাকা রোগীরা। এমন পরিস্থিতিতে প্রায় ১০লাখ মানুষের এই নগরীতে প্রতিদিন একটি পয়েন্টেই নমুনা সংগ্রহ করছেন মাত্র তিনজন স্বেচ্ছাসেবী। বিশ্লেষকরা বলছেন, এ অবস্থা চলতে থাকলে ভয়াবহ বিপদের মুখে পড়তে পারে স্বাস্থ্যব্যবস্থা।

দেশের সংক্রমণ ধরার পড়ার পর প্রায় মাস দু’য়েক করোনামুক্তই ছিল রাজশাহী। এ নিয়ে বেশ স্বস্তিতেই ছিল সিটি কর্পোরেশন। তবে নগরবাসীকে সুরক্ষায় দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে ঘটা করে নিজেই মাঠে নেমেছিলেন মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। যদিও শেষরক্ষা হয়নি। দিনকে দিন করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর গ্রাফ যেন ছুটছে ওপরের দিকেই।

এমন পরিস্থিতিতে বহু মানুষই নমুনা পরীক্ষায় সিটি কর্পোরেশনের সাথে যোগাযোগ করছেন। কথা ছিল প্রতিটি ওয়ার্ডে পরীক্ষার ব্যবস্থা থাকবে। কিন্তু নগরীর দড়িখরবেনা মোড়ে আরবান প্রাইমারি হেলথ কেয়ার সেন্টারের পাশে পরিত্যক্ত ভবনে নেয়া হচ্ছে নমুনা।কিন্তু সেখানেও মানা হয় না স্বাস্থ্যবিধি।

করোনা মোকাবিলায় আগেভাগেই ৩০০স্বাস্থ্যকর্মীকে প্রশিক্ষণ দিয়েছিল সিটি কর্পোরেশন। কিন্তু কাজের সময় আতঙ্কে তারা আর সাড়া দেয় নি। এ অবস্থায় মাত্র সাতজন স্বেচ্ছাসেবী পালা করে নমুনা সংগ্রহ করছেন মাত্র একটি পয়েন্টে। তবে বিশ্লেষকরা বলছেন, বেশি বেশি নমুনা পরীক্ষা ও সাধারণ মানুষকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলাতে ব্যর্থ হলে ভয়াবহ বিপদের মুখে পড়তে পারে এই নগরী। গত ১৫ মে রাজশাহী নগরীতে করোনা ধরা পড়ে। এ পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৫০ জনের। এর মধ্যে খোদ সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগেরই অন্তত ১০কর্মী রয়েছে। আর করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছে অন্তত ১০জন।

আরও খবরঃ

Leave a Comment