করোনাকালে পিঠ ও কোমরে ব্যথা? মেনে চলুন এই শরীরচর্চাগুলো

উপচার ডেস্ক :  সময়ের সঙ্গে মহামারি রূপে গর্জে ওঠা প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের ভয়াল তাণ্ডবে ভেঙেচুরে যাচ্ছে পুরো পৃথিবী। সংক্রমণের এই সময়ে বাসা থেকেই নিয়মিত অফিস করতে হচ্ছে অসংখ্য কর্মজীবীদের। তবে অফিসে সঠিক সেটআপের চেয়ার-টেবিল ছেড়ে বাড়িতে আরামদায়ক অবস্থায় বেকায়দায় বসে অথবা আধ-বসা হয়ে কিংবা আধ-শোয়া হয়ে ল্যাপটপে কাজ করার ফলে দেখা দিচ্ছে নতুন নতুন সমস্যা। যার ফলস্বরূপ পিঠ ও কোমরে ব্যথাভাব হয়। জেনে নিন এই সমস্যাটি কমানোর ক্ষেত্রে উপকারী তিনটি সহজ শরীরচর্চা-

পার্শিয়াল স্টমাক ক্রাঞ্চেস

অন্যতম ক্লাসিক শক্তি প্রদানকারী এবং ব্যথা নিরাময়কারী একটি ওয়ার্কআউট বলা হয় এই ক্রাঞ্চেসকে। পার্শিয়াল স্টমাক ক্রাঞ্চেস একই সাথে পিঠে ব্যথাভাব এবং পেটের মেদ কমাতে কাজ করে।

এর শরীরচর্চাটির জন্য প্রথমে মেঝেতে সোজা হয়ে শুয়ে হাঁটু ভাঁজ করে নিতে হবে। তারপর দুই হাত মাথার পেছনে রেখে ধীরে কাঁধ উঁচু করে তুলতে হবে মেঝে থেকে। এই অবস্থায় কিছুক্ষণ থেকে শ্বাস ছেড়ে আবার কাঁধ নামিয়ে নিতে হবে মেঝেতে। একই নিয়মে ৮ থেকে ১২ বার এর পুনরাবৃত্তি করতে হবে।

ওয়াল সিটস

পিঠ ও কোমরের ব্যথা কমাতে ওয়াল সিটস দারুণ একটি ওয়ার্কআউট। কোন চেয়ার কিংবা টুলে বসা নয়, দেয়ালে পিঠ ঠেকিয়ে বসার ভঙ্গি করাকে বলা হচ্ছে ওয়াল সিটস।

এর জন্য দেয়াল বরাবরা পিঠ ঠেকিয়ে সোজা হয়ে দাঁড়াতে হবে। এবারে ধীরে হাঁটু ভাঁজ করে দেয়ালে পিঠ ঠেকিয়ে রাখা অবস্থাতেই বসার মতো ভঙ্গি করতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে, পিঠ যেন দেয়ালের সাথে লেগে থাকে, পিঠ সরানো যাবে না। এভাবে ১০ সেকেন্ড থেকে পুনরায় সোজা হয়ে দাঁড়াতে হবে দেয়ালে পিঠ ঠেকিয়ে রাখা অবস্থায়। এরপর আবার বসার ভঙ্গি করতে হবে। এভাবে ১০ থেকে ১২ বার পুনরাবৃত্তি করতে হবে এই শরীরচর্চাটি।

প্রেস-আপ ব্যাক এক্সটেনশন

এই শরীরচর্চাটি প্রায় সকল বয়সীদের জন্যেই সহজ হয় বলে বেশ জনপ্রিয়। এর জন্য মেঝেতে উপুড় হয়ে শুয়ে পরতে হবে এবং দুই কনুইয়ের সাহায্যে ধীরে ধীরে কাঁধ উপরের দিকে ওঠাতে হবে। এতে করে শরীরের উপরের অংশ উপরের দিকে থাকলেও পেট থেকে নিচের অংশ মেঝেতে লেগে থাকবে।

এই অবস্থায় যতটা সম্ভব শরীরকে বাঁকাতে হবে উপরের অংশে। এভাবে ১০ থেকে ১২ সেকেন্ড থাকার পর ধীরে আবার সোজা হয়ে শুয়ে পড়তে হবে এবং ১০ থেকে ১২ সেকেন্ড রেস্টের পর পুনরায় একই নিয়মের পুনরাবৃত্তি করতে হবে।

আরও খবরঃ

Leave a Comment